কাশ্মীর সমস্যার প্রতিক্রিয়া কি?

কাশ্মীর সমস্যার প্রতিক্রিয়া

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কাশ্মীর একটি অমীমাংসিত ইস্যু। স্বাধীনতার ৫০ বছরের অধিক সময় ধরে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হয় নি এবং একে কেন্দ্র করে উভয় দেশ যুদ্ধে লিপ্ত হচ্ছে। এ পর্যন্ত কাশ্মীরকে কেন্দ্র করে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে ৪টি যুদ্ধ হয়েছে। কারগিল ছিল সর্বশেষ দ্বিপাক্ষিক সংঘাত। কাশ্মীর সমস্যার প্রভাব বা প্রতিক্রিয়া অত্যন্ত অমানবিক।

কাশ্মীর সমস্যার প্রতিক্রিয়াঃ ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার কাশ্মীর সমস্যার প্রভাব বা প্রতিক্রিয়া অত্যন্ত নির্মম ও ধ্বংসাত্মক। গত ৪ দশকের অধিক সময় ধরে একপক্ষ কাশ্মীরকে নিজেদের দখলে রাখার জন্য এবং অন্যপক্ষ তা দখল করার জন্য যুদ্ধের প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছে। ভারত-পাকিস্তান দুটি দেশ পারমাণবিক ক্ষমতার অধিকারী। এই দুই দেশ শতাধিক পারমাণবিক বোমা তৈরি করেছে। এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী ভারত পরমাণু বোমা, ক্ষেপণাস্ত্র, ট্যাংক, যুদ্ধ জাহাজ, সাবমেরিন ইত্যাদি তৈরির জন্য যে বিলিয়ন রুপী খরচ করছে তা দিয়ে ভারতের ১০০ কোটি মানুষের অশিক্ষা ও দরিদ্রতা দূর করে অর্থনৈতিক দুর্দশা লাঘব করা সম্ভব। কাশ্মীরি জনগণের মানবাধিকার ভারতীয় সৈন্যদের বুট জুতার তলায় পিষ্ট হচ্ছে। যুদ্ধের কারণে কাশ্মীরবাসীর অর্থনৈতিক, অবকাঠামো ও মানবসম্পদ উন্নয়ন দারুণভাবে ব্যাহত হচ্ছে। কাশ্মীরে যে দুটি সড়ক পথ নির্মিত হচ্ছে, তা কাশ্মীরি জনগণের জন্য নয়, ভারতীয় সৈন্য ও কমান্ডোদের দ্রুত কাশ্মীরে প্রবেশের জন্য। কাশ্মীর ইস্যুকে কেন্দ্র করে যেকোনো মুহূর্তে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যুদ্ধ লেগে যেতে পারে।

কাশ্মীর সমস্যার প্রতিক্রিয়া অত্যন্ত নির্মম, নিষ্ঠুর, অমাণবিক ও ধ্বংসাত্মক। কাশ্মীর প্রতিক্রিয়ার কারণে ভারত অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামরিকভাবে প্রচুর ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এছাড়া কাশ্মীরবাসীর অর্থনৈতিক ও মানব উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে।

কাশ্মীর সমস্যার সূচনা
কাশ্মীর সমস্যার সূচনা

দক্ষিণ এশীয় শান্তি ও নিরাপত্তার ক্ষেত্রে কাশ্মীর সমস্যা এক বিরাট হুমকিস্বরূপ। ১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসন থেকে মুক্ত হয়ে ভারত আরো পড়ুন

মামলুক বংশ
মামলুক বংশ বা দাস বংশ কি এবং কি এদের পরিচয়

জগতের অতি অল্প রাজ বংশই মিশরের মামলুক সুলতানদের ন্যায় খ্যাতি লাভে সমর্থ হয়েছে। মামলুকগণ মিশরে প্রায় তিনশত বৎসর রাজত্ব করেন। আরো পড়ুন

আল-আজিজ কে?

খলিফা আল মুইজের মৃত্যুর পর তার সুযোগ্য পুত্র নিসার আল মনসুর “আল আজিজ বিল্লাহ” উপাধি গ্রহণ করে ৯৭৫ খ্রিস্টাব্দে ফাতেমীয় আরো পড়ুন

তারিক-ইবন-যিয়াদ কে?

তারিক-ইবন-যিয়াদ আফ্রিকার গভর্ণর মুসা ইবন নুসাইরের অধিনস্ত কর্মচারী ছিলেন। তারিকের জীবন চরিত্র সম্বন্ধে বিশেষ কিছু জানা যায় না। তবে এতটুকু আরো পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।