তারিক-ইবন-যিয়াদ কে?

তারিক-ইবন-যিয়াদ

তারিক-ইবন-যিয়াদ আফ্রিকার গভর্ণর মুসা ইবন নুসাইরের অধিনস্ত কর্মচারী ছিলেন। তারিকের জীবন চরিত্র সম্বন্ধে বিশেষ কিছু জানা যায় না। তবে এতটুকু জানা গিয়েছে যে, তিনি মুর বংশজাত ছিলেন এবং স্বীয় কর্ম ক্ষমতা, তেজস্বিতা ও মেধার বলে অতি সাধারণ অবস্থা থেকে তানজিয়ারের শাসনকর্তার পদে অধিষ্ঠিত হন। তার সামরিক তেজস্বিতার জন্য তাকে তানজিয়ারের দুর্গের অধিনায়কের দায়িত্ব দেয়া হয়।

স্পেন অভিযানঃ মুসা কর্তৃক মুসলিম বাহিনীর সেনাপতি নিযুক্ত হয়ে তারিক স্পেন অভিযানের প্রস্তুতি গ্রহণ করতে থাকেন। তার বাহিনীতে সৈন্য সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ১০,৩০০ থেকে ১২,০০০ এ পৌছায়। তার নেতৃত্বে মুসলমানদের বিজয়াভিযান অব্যাহত গতিতে চলতে থাকে। ৭১১ খ্রিস্টাব্দের গ্রীষ্মকালের মধ্যেই ভ্যালেনসিয়া এবং আলমেরিয়াসহ স্পেনের দক্ষিণ এবং মধ্যবর্তী অঞ্চলে তারিক মুসলিম আধিপত্য বিস্তারে সক্ষম হন। অতি অল্প সময়ের মধ্যে ইউরোপীয় ভূ-খণ্ডে মুসলমানদের অবিস্মরণীয় সামরিক সাফল্যের ফলে তিনশত বছরের (৪০৯-৭১২ খ্রিঃ) গথিক শাসনের অবসান হয়। ইতিমধ্যে মুসাও তার সামরিক বাহিনী নিয়ে স্পেনে আগমন করেন। তিনি স্পেনে পৌছে তারিকের অধিকৃত অঞ্চলসমূহ ব্যতিরেকে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের খ্রিস্টান অধ্যুষিত শহরগুলোর দিকে অভিযান করেন। পশ্চিমাঞ্চলে বিজয় সাফল্য অর্জন করে মুসা তলেডোর অভিমুখে রওয়ান হন এবং সেথায় তার অধীনস্ত সেনাপতি তারিকের সাথে দেখা হয়। মুসা ও তারিক যৌথভাবে আরাগনের দিকে অগ্রসর হলে আরাগনের খ্রিস্টান গভর্ণর কাউন্ট ফয়চুন আত্মসমর্পণ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। এর পর মুসলিম বাহিনী বার্সেলোনা, আসতুরিয়া, লিজিও এবং আমেয়া দখল করে। এভাবে মাত্র দু’বছরের মধ্যে(৭১১-৭১২) সমগ্র স্পেনে মুসলিম আধিপত্য প্রতিষ্ঠিত হয়। খলিফা আল-ওয়ালিদের নির্দেশে ৭১৪ খ্রিস্টাব্দের সেপ্টেম্বর মাসে মুসা ও তারিক দামেস্কের পথে রওয়ানা হন। ৭১৫ খ্রিস্টাব্দের ফেব্রুয়ারি মাসে দামেস্কে পৌছে তিনি আল-ওয়ালিদকে অসুস্থ দেখতে পান। আল ওয়ালিদের মৃত্যুর পর শাহজাদা সুলায়মান তাদের প্রতি দুর্ব্যবহার করেন।

অবশেষে তারিক ও মুসা উভয়ে অভাবের তাড়নায় অনাহারে অজ্ঞাতে দেহত্যাগ করেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।