নবাব সলিমুল্লাহর পরিচয়

নবাব সলিমুল্লাহর পরিচয়

বাংলার রাজনীতিতে ঢাকার নবাব স্যার সলিমুল্লাহ এক অনবদ্য ব্যক্তিত্ব। বিশেষ করে বাংলার মুসলমানদের সামগ্রিক উন্নয়নে নবাব সলিমুল্লাহর অবদান ছিল অনস্বীকার্য্য। ব্রিটিশ শাসন ও শোষণের জাঁতাকলে বাংলা তথা ভারতবর্ষের মুসলমান সম্প্রদায় যখন দুর্দশাগ্রস্ত, সমাজজীবনের সর্বক্ষেত্রে যখন তারা হতাশার গহ্বরে নিমজ্জিত, ঠিক এমনি এক যুগসন্ধিক্ষণে মুসলমান সম্প্রদায়ের মুক্তির দিশারি হিসেবে নবাব সলিমুল্লাহ রাজনীতির অঙ্গনে আবির্ভূত হন। তার সৃজনশীল প্রতিভা, গঠনমূলক উদ্যোগ, নিরলস প্রচেষ্টা ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বের ফলে বিশেষ করে পূর্ববাংলার মুসলমান সমাজে এক প্রাণচাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

নবাব সলিমুল্লাহর পরিচয়ঃ নবাব স্যার সলিমুল্লাহ ১৮৭১ সালে ঢাকার সম্ভ্রান্ত নবাব পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম ছিল নবাব খাজা আহসান উল্লাহ। ছোটবেলা থেকেই সলিমুল্লাহ তীক্ষ্ণ মেধাসম্পন্ন ছিলেন। শিক্ষা জীবন সমাপ্তির পর তিনি ব্রিটিশ সরকারের অধীনে একজন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে চাকরি গ্রহণ করেন। কিন্তু কিছুকাল চাকরি করার পর তিনি রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করেন। বস্তুত তদানীন্তন বাঙালি মুসলমানদের অবর্ণনীয় দু:খ-দুর্দশা, অত্যাচার-নিপীড়ন ও হতাশা-নিরাশায় ভরপুর রাজনৈতিক অঙ্গন তাকে হাতছানি দিয়ে ডেকেছিল। সুদীর্ঘ কর্মময় জীবনের অবসান ঘটিয়ে তিনি ১৯১৫ সালের ১২ জানুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন।

ব্রিটিশ সরকারের বৈষম্যমূলক নীতির শিকারে পরিণত হয়ে পিছিয়ে পড়া পূর্ববাংলার মুসলমানদের শিক্ষা-দীক্ষা, রাজনৈতিক তথা সামগ্রিক উন্নয়নের তিনি ছিলেন অগ্রদূত। তার রাজনৈতিক প্রজ্ঞার সিঁড়ি বেয়ে মুসলমান সম্প্রদায় এগিয়ে যায় চেতনা বিকাশের আরো এক ধাপ ঊর্ধ্বে।

তিতুমীরের নারিকেলবাড়িয়ার সংগ্রাম
তিতুমীরের নারিকেলবাড়িয়ার সংগ্রাম

ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি তথা ব্রিটিশ বিরোধী সশস্ত্র প্রতিরোধ আন্দোলনের ইতিহাসে বাঙালি কীর্তিমান পুরুষ তিতুমীর ছিলেন এক উদীয়মান নক্ষত্র। ধর্মীয় ও আরো পড়ুন

তিতুমীরকে বাংলার স্বাধীনতার অগ্রনায়ক বলা হয় কেন?

ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন-সংগ্রামের ইতিহাসে যে কয়জন কীর্তিমান পুরুষের নাম চিরস্মরণীয় হয়ে আছে তাদের মধ্যে তিতুমীর ছিলেন অন্যতম। অসীম সাহসী ও আরো পড়ুন

দেওয়ানি বলতে কি বুঝায়?

ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি কর্তৃক বাংলা, বিহার ও উড়িষ্যার দেওয়ানি লাভ বাংলা তথা ভারতীয় উপমহাদেশে কোম্পানি তথা ব্রিটিশ আধিপত্য প্রতিষ্ঠার ইতিহাসে আরো পড়ুন

মুক্তিযুদ্ধে সোভিয়েত ইউনিয়নের ভূমিকা
মুক্তিযুদ্ধে সোভিয়েত ইউনিয়নের ভূমিকা

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ কালীন সময়ে সোভিয়েত ইউনিয়ন ছিল তৎকালীন এক পরাক্রমশালী পরাশক্তি। রাশিয়ার সমর্থন ও সহযোগিতায় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ গতি পায় ও আরো পড়ুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।