সাজার-উদ-দার কে?

সাজার-উদ-দার

সাজার-উদ-দার ছিলেন মিশরের মামলুক বংশের প্রতিষ্ঠাতা। মামলুক শব্দের অর্থ ক্রীতদাস। মহান সালাহ উদ্দিনের মৃত্যুর পর মুসলিম জাহানের মহাদুর্দিনে মামলুকরা ইসলামকে আসন্ন ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করেন। আইয়ুবী বংশের ধ্বংসস্তুপের উপর আস সালাহর বিধবা পত্নী সাজার-উদ-দার মিশরে মামলুক বংশ প্রতিষ্ঠা করেন।

পরিচিতিঃ সাজার-উদ-দার এক সময়ে আব্বাসীয় খলিফা মুতাসিম বিল্লাহর ক্রীতদাসী ছিলেন। কারও মতে সাজার-উদ-দার তুর্কি আবার কারও মতে আর্মেনিয়ান ক্রীতদাস বা মামলুক। প্রথমে তিনি আব্বাসীয় খলিফা মুতাসিম, বিল্লাহর হারেমে ছিলেন। পরে তিনি আইয়ুবী সুলতান আস সালেহ এর অধিকারে আসেন এবং এক পর্যায়ে তার স্ত্রীর মর্যাদা লাভ করেন।

ক্ষমতা লাভঃ স্বামীর মৃত্যুর পর ১২২৪ খ্রিঃ তিনি সিংহাসনে আরোহণ করে মিশরের মামলুক বংশের প্রতিষ্ঠা করেন। ৮০ দিন রাজত্ব করার পর মিশরের বিক্ষুব্ধ মামলুক আমীরগণ সাজার-উদ-দারের সেনাপতি আইবেককে সুলতান হিসেবে নির্বাচিত করলে সাজার-উদ-দার তাকে বিবাহ করেন এবং সিংহাসনে অধিষ্ঠিত করান। আইবেক (১২৫০-৫৭) ৭ বছর শাসন পরিচালনা করে সাজার-উদ-দার কর্তৃক নিহত হন। এ ঘটনার অব্যবহিত পরেই সাজার-উদ-দারকেও হত্যা করা হয়।

জগতের অতি অল্প রাজ বংশই মিশরের মামলুক সুলতানদের ন্যায় খ্যাতি লাভে সমর্থ হয়েছে। তারা মিশরে প্রায় ৩ শত বছর রাজত্ব করেন। তাদের সুদীর্ঘ রাজত্বকাল তাই ইসলামের ইতিহাসে নানা দিক দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।