আধুনিক খাজনা তত্ত্ব

ক্লাসিক্যাল অর্থনীতিবিদ ডেভিড রিকার্ডো তার খাজনা তত্ত্ব বিশ্লেষণে ভূমিকে একটি উপাদান হিসেবে বিবেচনা করেন নি, তিনি ভূমিকে অস্থিতিস্থাপক প্রাকৃতিক দান হিসেবে বিবেচনা করেছেন। রিকার্ডোর খাজনা তত্ত্বের বিভিন্ন দুর্বলতার প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে আধুনিক খাজনা তত্ত্বের উদ্ভব হয়। আধুনিক খাজনা তত্ত্বে ভূমিকে উৎপাদন উপাদান হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে।

আধুনিক খাজনা তত্ত্বঃ ক্লাসিক্যাল খাজনা তত্ত্ব অনুযায়ী জমিই শুধু খাজনা অর্জন করতে পারে। কারণ জমি সীমাবদ্ধ এবং এর কোনো বিকল্প ব্যবহার নেই। রিকার্ডোর মতে ভূমির আদিম ও অনিবশ্বর শক্তির ব্যবহারের জন্য ভূমি মালিককে যে অর্থ দেওয়া হয় তাই খাজনা। ক্লাসিক্যাল খাজনা তত্ত্বের বিভিন্ন ত্রুটি ও সীমাবদ্ধতার প্রেক্ষিতে গড়ে উঠে আধুনিক খাজনা তত্ত্ব। আধুনিক অর্থনীতিবিদরা ভূমিকে উৎপাদনের একটি উপাদান হিসেবে বিবেচনা করেন, যার যোগান অস্থিতিস্থাপক। তাদের মতে, ভূমির স্থানান্তর আয় অপেক্ষা অতিরিক্ত অর্জিত অর্থই অর্থনৈতিক খাজনা।

রিকার্ডোর খাজনা তত্ত্ব থেকে আধুনিক খাজনা তত্ত্ব তাত্ত্বিক দিক থেকে অনেক উন্নত। রিকার্ডো কিছু বিতর্কিত বিষয়কে তত্ত্বের অনুমিতি হিসেবে ধরে নেওয়ায় সেগুলো আধুনিক অর্থনীতিবিদরা গ্রহণ করতে পারেন নি। আবার গুরুত্বপূর্ণ যেসব বিষয় রিকার্ডো বর্জন করেছেন আধুনিক তত্ত্বে তা সংযোজন করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।